মেখলা তুমি

মেখলা, তুমি একলা বিকেলে আমার সাথে বৃষ্টিতে ভিজেছিলে

মনে পড়ে?

মেখলা, তোমার হাতের নরমে আমার হাতকে আশ্রয় দিয়েছিলে

যত্ন করে

মেখলা, তুমি অষ্টমীতে নীল শাড়িতে আকাশ হয়েছিলে

মনে আছে?

মেখলা, তোমার কস্তুরী মৃগী গন্ধ পেতে আসতে চেয়েছিলাম

আরো কাছে

মেখলা, তুমি স্নানশেষে খোলা চুলে কার অপেক্ষায় দাঁড়িয়েছিলে

জানালাতে

মেখলা, সেই বৃষ্টিস্নাতা মিষ্টি তোমায় লুকিয়ে দেখেছিলাম

একা ছাতে

মেখলা, তোমার ঠোঁটের নরম ঠোঁটে নিয়েছিলাম

লুকিয়ে অন্ধকারে

মেখলা, তোমার বন জোছনা রুপ চোখে হারিয়েছিলাম

বারে বারে

মেখলা, তোমার কাঠবিড়ালী-লঘু পায়ের আলসেমিতে

নুপুর পরিয়েছিলাম

মেখলা, তোমার জীবন সাথী হবার

স্বপ্ন দেখেছিলাম

 

মেখলা, তোমার চড়ুই পাখি চোখ শান্তি দিয়েছিল

মেখলা, তোমার আলগা-খোঁপার বাঁধন খুলে বৃষ্টি নেমেছিল

মেখলা, তুমি পারো নি শেষে হিসেব করতে গিয়ে আমার নারী হতে

মেখলা, তবে আজ কেন কাঁদো উপুড় হয়ে শুয়ে প্রতিরাতে?

(প্রকাশিত)
Facebook Comments

Leave a Reply